ছোটোগল্প

স্বপ্নভূক বিহঙ্গম কিংবা কিছু বিষাদের গল্প

স্বপ্নভূক বিহঙ্গম কিংবা কিছু বিষাদের গল্প

স্বপ্নভূক বিহঙ্গম কিংবা কিছু বিষাদের গল্প | আবুল হাসনাত বাঁধন এক. আজ জাহানারার জন্মদিন ছিল। অজানা কারণে অথবা দৈবভাবে প্রতিবছর ওর জন্মদিনে বৃষ্টি নামে। আজও ব্যতিক্রম ঘটেনি! বরং আকাশ কালো হয়ে ঝুম বৃষ্টি নেমেছিল! দুজন কাকভেজা হয়ে যখন টিএসসি পৌঁছেছি, তখন বৃষ্টির তাণ্ডব অনেকটাই কমে গেছে! প্রতিবছর এই দিনে জাহানারা সুমাইয়ার সাথে দেখা করে, ওকে …

স্বপ্নভূক বিহঙ্গম কিংবা কিছু বিষাদের গল্প Read More »

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:
এটা তো ছবির মতন | আব্দুল্লাহ আল জুবাইর

এটা তো ছবির মতন

এটা তো ছবির মতন | আব্দুল্লাহ আল জুবায়ের এক.  বৃষ্টি শুরু হলো। অ্যালানের হাতের ওপর এক ফোঁটা পানি পড়তেই ওর চোখ বড়ো বড়ো হয়ে গেল। এসব মানতে পারছে না ও। কেমন করে সম্ভব এটা? অ্যালানের চোখ থেকে এখনো বিস্ময় যায়নি। মাথা উঁচু করে ধূসর মেঘাচ্ছন্ন আকাশের দিকে তাকিয়ে দেখল আরও এক ঝাঁক বৃষ্টি ওর দিকে …

এটা তো ছবির মতন Read More »

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:
গ্রীষ্মের এক স্নিগ্ধ ভোরে শতভাগ নিখুঁত সেই মেয়েকে দেখেছি

গ্রীষ্মের এক স্নিগ্ধ ভোরে শতভাগ নিখুঁত সেই মেয়েকে দেখেছি

গ্রীষ্মের এক স্নিগ্ধ ভোরে শতভাগ নিখুঁত সেই মেয়েকে দেখেছি মূল: হারুকি মুরাকামি অনুবাদ: ঈশিকা জাহান মুন এপ্রিলের এক সুন্দর সকাল। টোকিওর হারাজুকু নামের এক ছিমছাম এলাকার সংকীর্ণ রাস্তা ধরে হেঁটে যাচ্ছিলাম, শতভাগ নিখুঁত সেই মেয়েটির সামনে দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম আমি, আর তখনই মনে হলো— এই মেয়েটাকে আসলে আমার জন্যেই ধরায় পাঠানো হয়েছে। সত্যি বলতে, সে …

গ্রীষ্মের এক স্নিগ্ধ ভোরে শতভাগ নিখুঁত সেই মেয়েকে দেখেছি Read More »

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:
আমরা তিনজন | বুদ্ধদেব বসু

আমরা তিনজন

আমরা তিনজন | বুদ্ধদেব বসু আমরা তিনজন একসঙ্গে তার প্রেমে পড়েছিলাম : আমি, অসিত আর হিতাংশু; ঢাকায় পুরানা পল্টনে, উনিশ-শো সাতাশে। সেই ঢাকা, সেই পুরানা পল্টন, সেই মেঘে-ঢাকা সকাল! এক পাড়ায় থাকতাম তিনজন। পুরানা পল্টনে প্রথম বাড়ি উঠেছিল তারা-কুটির, সেইটে হিতাংশুদের। বাপ তার পেনশন পাওয়া সাব-জজ, অনেক পয়সা জমিয়েছিলেন এবং মস্ত বাড়ি তুলেছিলেন একেবারে বড় …

আমরা তিনজন Read More »

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:
একটি ইঞ্জিন ও হলুদ জামা _ রাহুল চন্দ্র দাস

একটি ইঞ্জিন ও হলুদ জামা

একটি ইঞ্জিন ও হলুদ জামা | রাহুল চন্দ্র দাস এক. বাজারের গলি-ঘুপচির মধ্যে বিশাল বিশৃঙ্খল ওয়ার্কশপ। তার এক কোনায় একটা পুরোনো ইঞ্জিন জবুথবু পড়ে থাকে। লোহা-লক্কড়ের স্তুপের মতো মুমূর্ষু পড়ে পড়ে ঝিমোয়। অলস ও ক্লান্ত দুপুরের আড্ডার সময় এর ওপর কেউ কেউ বসে থাকে। খাবার সময় হয়ে গেলে টেবিল বা খাট আশেপাশে খুঁজে না পেয়ে …

একটি ইঞ্জিন ও হলুদ জামা Read More »

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন: